Skip to main content

অনলাইনে ইনকাম টিপস ২০২২ - সেরা ৭ টি অনলাইন জব-আইডিয়া

আজকে আমরা ইন্টারনেটের কিছু জনপ্রিয় জব আইডিয়া সম্পর্কে জানবো। যেগুলো চাইলে আপনি ঘরে বসেই শিখতে পারেন। ঘরে বসেই করতে পারেন এমন কিছু সেরা ইনকাম টিপস নিয়েই 'টেক বাংলা ইনফো'-এর আজকের আয়োজন।

online-income-tips-bangla

অনলাইনে ইনকাম টিপস ২০২২

আমাদের প্রত্যেকেরই জীবনে কোন না কোন কিছু করতে হয়। আমরা কেউ ব্যবসা-বাণিজ্য করতে চাই, কেউ জব করতে চাই। যার যেটা ভালো লাগে সেটা করবে

কিন্তু শুরুর দিকে আমরা বুঝতে পারি না যে কোন জবটা আমাদের জন্য বেশি কল্যাণকর। যেমন ধরুন একটি বিজনেস করতে চাইলে কি ধরনের ব্যবসায়িক অপরচুনিটি আমাদের কাছে রয়েছে?

বর্তমানে এগুলো সম্পর্কে আমরা কনফিউজ থাকি বিশেষ করে শুরুর দিকে। আজকে যে বা যারা কোন একটি বা একাধিক বিষয়ে এক্সপার্ট তারাও একটা সময় নতুন ছিল। পরবর্তীতে কাজ করতে করতে তারা এক্সপার্ট হয়ে গিয়েছে। আপনারা যারা কিছুটা কনফিউজড! বুঝতে পারছেন না যে...

  • কি ধরনের কাজ করা যেতে পারে অনলাইনে?
  • কি কি অপরচুনিটি রয়েছে অনালাইনে ইনকামের?
  • কি কি অনলাইন জব এর চাহিদা সবচেয়ে বেশি?

মূলত তারা আজকের এই অনলাইনে ইনকাম টিপস ২০২২ আর্টিকেল থেকে ভাল একটি ধারণা পাবেন।

অনলাইনে কোন কাজের ইনকাম সবচেয়ে বেশী?

অনলাইনে আয় করার এমন অনেক জব-মাধ্যম আছে যেগুলোর সাহায্যে আপনি কম সময়ে ভাল একটা ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন। তাহলে এখন স্বাভাবিক ভাবেই মনে প্রশ্ন আসে 'অনলাইনে কোন জব গুলোর আয় সবচেয়ে বেশী?'

বর্তমানে অনলাইনে এসইও, সোসাল মিডিয়া মার্কেটিং, ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক্স ডিজাইন, এনিমেশন এসব জব গুলোর চাহিদা বেশি। আপনার স্কিল ও বুদ্ধিমত্তা কে কাজে লাগিয়ে খুব সময়ে আপনি সফল হতে পারেন অনলাইনে ক্যারিয়ার বিল্ডাপ এ।

সেরা ৭ টি জনপ্রিয় অনলাইন জব আইডিয়া

আজকের এই পোস্ট টি বেসিক্যালি তাদের জন্য। আজকে আমাদের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে কিছু অনলাইন জব আইডিয়া সম্পর্কে আপনাদেরকে একটি স্বচ্ছ ধারণা দেয়া। এর মাধ্যমে আপনি গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ পাবেন। এগুলোর মধ্যে যেটা আপনার ভালো লাগে সেটা আপনি করতে পারেন অথবা এটা থেকে আইডিয়া নিয়ে আরও একটু রিসার্চ করে যেটা ভালো লাগে সেটা আপনি করতে পারেন। তাহলে চলুন আজকে আমরা এই আর্টিকেল থেকে ৭ টি জনপ্রিয় কিছু ইন্টারনেটভিত্তিক জব আইডিয়া নিয়ে আলোচনা করব।

top-7-online-jobs-tech-bangla-info

আলোচনার শুরুতে জেনে নেয়া যাক আজকের সেরা ৭ টি জনপ্রিয় অনলাইন জব আইডিয়া'র লিস্ট।

  1. টি-শার্ট ডিজাইন
  2. লোগো ডিজাইন
  3. ফটো এডিটিং
  4. এসইও - সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন
  5. প্রুপ রিডিং
  6. মোশান গ্রাফিক্স
  7. ব্লগিং

টি-শার্ট ডিজাইন

আমরা কম বেশি সবাই কিন্তু টি-শার্ট পরি। আমরা যত টি-শার্ট দেখতে পাই এগুলোর ডিজাইন কেউ না কেউ করছে। আর তারাই হচ্ছে টি-শার্ট ডিজাইনার। মানুষ কি কখনো টি শাট কেনা বন্ধ করবে? এটা কখনোই বন্ধ করবে না। আমাজন অনেক বড় একটি মার্কেটপ্লেস যেটা আমরা সবাই জানি। মিলিয়নস অফ কাস্টমার প্রতিদিন আমাজন ভিজিট করে। সেখান থেকে তাদের নিত্য-প্রয়োজনীয় পণ্য কেনাকাটা করে থাকে।

একজন ডিজাইনার একটি আমাজন মার্চেন্ট একাউন্ট ক্রিয়েট করে সেই একাউন্টে তার ডিজাইন করা টি-শার্ট গুলোকে সাবমিট করতে পারে। কোন কাস্টমার যখন আমাজন থেকে সেই টি-শার্ট অর্ডার করবে আমাজন সেটাকে ম্যানেজ করবে। তাদের গোডাউনে সেটাকে স্টক করবে এবং কাস্টমারকে ডেলিভারি করে দিবে। যত কাজ আছে সবকিছু আমাজন করবে। একজন ডিজাইনার হিসাবে আপনার কাজ হচ্ছে শুধু আপনার মার্চেন্ট একাউন্ট এর মধ্যে ভালো ভালো ডিজাইন সাবমিট করা।

এছাড়াও অন্যান্য যত মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেমন ফাইবার ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস এখানেও টি-শার্ট ডিজাইনার হিসেবে কাজ করা যেতে পারে। অনেকের টি-শার্ট ডিজাইনারদের হায়ার করে থাকে তাদের প্রতিষ্ঠানের জন্য টি-শার্ট ডিজাইন করে নিতে। এখানে আপনি চাইলে একজন ডিজাইনার হিসেবে কাজ করতে পারেন। ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর ব্যবহার খুব ভালোভাবে ও সহজে শিখা যায়।

টি-শার্ট ডিজাইন এর কনসেপ্ট গুলো ক্লিয়ার হতে পারলে আপনি একজন ডিজাইনার হিসেবে আমাজন এর মত বড় বড় মার্কেটপ্লেসগুলোতে সহজে কাজ করতে পারবেন। ডিজিটাল সার্ভিস হিসেবে ঘরে বসেই শিখতে পারছেন। ঘরে বসে ডিজাইন করতে পারছেন এবং শুধুমাত্র ডিজাইনগুলো সাবমিট করার মাধ্যমে আপনি এখানে একটা ক্যারিয়ার বিল্ড করতে পারছেন। ফিজিক্যালি কোথাও যেতে হচ্ছে না।

লোগো ডিজাইন

আমরা যেসব প্রতিষ্ঠানে থাকি সেগুলো ছাড়াও ইউটিউবে হাজার হাজার ইউটিউব চ্যানেল, ফেসবুক এ ফেইসবুক পেজ, ফেসবুক গ্রুপ সহ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এর প্রত্যেকটি প্রোজেক্টের জন্য একটি লোগো ডিজাইন প্রয়োজন হয়। মানুষ কি এই ধরনের সার্ভিস নেওয়া বন্ধ করবে? নতুন নতুন প্রতিষ্ঠান মার্কেটে লঞ্চ হবে। প্রতিনিয়ত হাজার হাজার কোম্পানি লঞ্চ হচ্ছে। সেই কোম্পানি তে একটা লোগো এর পাশাপাশি ব্যানার বিশেষ করে সোস্যাল মিডিয়া ব্যানার দরকার হবে। অনলাইন অফলাইন সব জায়গাতেই লোগো ডিজাইনার এর চাহিদা রয়েছে।

ফেসবুক পেজের মাধ্যমে কিংবা নিজের একটি পোর্টফোলিও ওয়েবসাইট করার মাধ্যমে আপনি নিজের পরিচিতি তুলে ধরে ঘরে বসেই লোগো ডিজাইন এর মাধ্যমে আয় করতে পারবেন।

ফটো এডিটিং

বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট রয়েছে, ফেসবুক পেজ রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে বিভিন্ন অফার করে। তাদের পণ্যগুলোর ছবি তোলার পর সে গুলোকে এডিটিং করে একটা ভালো প্রেজেন্টেশন তৈরি করা হয় যেন কাস্টমাররা প্রোডাক্ট ইউজ করার পূর্বে সেটাকে ভালোভাবে দেখে নিতে পারে। আর এখানেই ফটো এডিটর দের একটি ভালো চাহিদা রয়েছে। পণ্যের ছবিগুলোকে এডিট করা ও প্রোডাক্ট ফটো এডিটিং এর কাজ করার মাধ্যমে আপনি একজন ফটো এডিটর হিসেবে এটি ক্যারিয়ার বিল করতে পারেন। বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে মাধ্যমে জব করতে পারেন।

এসইও - সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন

একটি ওয়েব সাইটকে গুগলে র‍্যাংক করার জন্য এসইও - সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন করতে হয়। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ওয়েবসাইট মালিকদের হাতে সময় থাকে না। তারা তাদের ওয়েবসাইটের এসইও করার জন্য এসইও এক্সপার্ট হায়ার করে। বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য বিভিন্ন বিষয় খুঁজে বের করার জন্য একটি ওয়েবসাইটকে গুগলে রাংক করাতে পারলে অনেক অর্গানিক ভিজিটর বা ট্রাফিক পাওয়া যায়। এসব কাজের জন্য এসইও এক্সপার্টদের অনেক ডিমান্ড রয়েছে।

একজন এসইও এক্সপার্ট কে কয়েকটি বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে হয়। যেমন কনটেন্ট রাইটিং, অফ পেইজ এসইও, অন পেজ এসইও, এসইও লিংক বিল্ডিং, এবং ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট সম্পর্কে বেসিক ধারণা থাকতে হয়। তবে প্রফেশনাল ডেভলপার হওয়ার প্রয়োজন নেই। একটি ওয়েবসাইট কিভাবে সেটআপ করতে হয়? কিভাবে পেজগুলো কাজ করে? স্ট্রাকচার গুলো খুব ভালোভাবে জানতে হয়। বিশেষ করে ওয়ার্ডপ্রেসের ব্যবহারটি খুব ভালোভাবে জানতে হয়।

প্রুপ রিডিং

আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই রয়েছে যারা অন্যের ভুল খুব সহজেই ধরতে পারে। ভুল আইডেন্টিফাই করতে পারে। উচ্চারণ ঠিকমতো করতে পারছে না বা জানলেও এখানেও গ্রামাটিক্যাল ভুল রয়েছে। এই ভুল ধরতে পারাটাও কিন্তু একটি স্কিল । যেটাকে আপনি সার্ভিস হিসেবে অনলাইনে ইনকাম করতে পারেন। অনেকেই রয়েছে যারা তাদের ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পাবলিশ করে থাকে। পার্সোনাল ও প্রফেশনাল কাজে বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট তাদের কি লিখতে হয়। কিন্তু অন্যান্য কাজ করার কারণে তারা সে গুলোকে ভাল হবে রিভিউ করতে পারে না। কোন ভুল ত্রুটি আছে কিনা? তা চেক করার সময় পায় না। তাই তারা প্রুপ রিডিং এক্সপার্ট দের হায়ার করে থাকে যারা এই ভুলগুলো কে ধরতে পারে।

প্রুফ রিডার এর কাজ হচ্ছে বিভিন্ন কন্টেন্ট আর্টিকেল এর মধ্যে কোন গ্রামাটিক্যাল মিস্টেক আছে কিনা? স্পেলিং মিসটেক আছে কি না? এগুলো খুঁজে বের করে। সেগুলো ফিক্স করে দেয়াও একটি ভাল জব স্কিল।অন্যের কনটেন্ট গুলোকে প্রপারলি ফরমেট করে দিতে পারেন বা কারেকশন করে দিতে পারেন। আপনি যদি ইংরেজিতে ভালো হয়ে থাকেন এবং এই ধরনের ভুল ত্রুটি আপনি সহজেই ধরতে পারেন তার মানে আপনার কাছে অলরেডি একটি স্কিল আছে। আর এই স্কিল আপনি অনলাইনে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে সার্ভিস হিসেবে অফার করার মাধ্যমে ইন্ডাস্ট্রিতে জব পেতে পারেন।

মোশান গ্রাফিক্স

বিভিন্ন ভিডিওতে আপনার এনিমেশন দেখতে পান। যেমন ট্রানজিশন এনিমেটেড টাইটেল বিশেষ করে ক্রিকেট ফুটবল খেলা দেখলে আপনারা দেখতে পাবেন যে সেখানে এনিমেটেড স্কোরবোর্ড থাকে। নিচে একটি Bar থাকে যেখানে খেলার আপডেট দেখা যায়। এই যে এনিমেটেড ব্যাপারগুলো বা ইফেক্টগুলো আমরা দেখতে পাই এগুলো মূলত মোশন গ্রাফিক্স ডিজাইনার'রা ডিজাইন করে থাকে।

এছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য বা সেবা গুলোকে সহজে প্রচার করার জন্য বিভিন্ন ধরনের এনিমেশন ভিডিও তৈরি করে থাকে। ইউটিউবে এ গেলে দেখবেন বিভিন্ন চ্যানেলের ইন্ট্রো ভিডিও দেখা যায়। এগুলো বেসিক্যালি মোশন গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের কাজ। এই কাজগুলোর অনলাইনে অনেক ভালো ডিমান্ড রয়েছে। কয়েকটি সফটওয়্যার এর কাজ জানতে হয় মোশান গ্রাফিক ডিজাইনার হতে হলে। যেমন ফটোশপ, ইলাস্ট্রেটর, প্রিমিয়ার প্রো, আফটার ইফেক্ট ইত্যাদি। গ্রাফিক্স ডিজাইন সম্পর্কে কিছুটা নলেজ এর প্রয়োজন হয়। কারণ এ গ্রাফিক্স ডিজাইন, এনিমেশন এর সমন্বয়ে মূলত মোশন গ্রাফিক্স করা হয়।

ব্লগিং

শুধুমাত্র ব্লগারদের জন্য! যে কেউ ব্যাসিক স্কিল নিয়েও প্রফেশনাল ব্লগিং করতে পারে একটি ওয়েবসাইট ব্যবহার করে। নিজের নলেজ শেয়ার করতে পারে, বিভিন্ন রিসোর্স শেয়ার করতে পারে। সেগুলোর মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইট ডেভলপ করতে পারলে সেটা থেকে বিভিন্নভাবে রেভিনিউ জেনারেট করা যায়। মার্কেটপ্লেসে এটা বিক্রি করার মাধ্যমে ভালো মানের রেভিনিউ আর্ন করা যায়। এছাড়া এডসেন্স তো আছেই।

বর্তমানে ব্লগিং ও এডসেন্স এর মাধ্যমে অনলাইনে ইনকাম করা অনেক জনপ্রিয় ও সেরা একটি উপায়। ব্লগিং ই হচ্ছে একমাত্র পেশা যেখানে আপনি ঘুমিয়ে ঘুমিয়েও টাকা আয় করতে পারবেন। ব্লগিং ও এডসেন্স কে অনলাইন দুনিয়ায় তুলনা করা হয় 'সোনার ডিম পাড়া হাঁস' এর সাথে!

আরো আছে লোকাল এডভার্টাইজিং। আপনার ব্লগ বেশি জনপ্রিয় হতে শুরু করলে আপনি এক সময় লোকাল এডভার্টাইজিং এর মাধ্যমেও ইনকাম করতে পারবেন।

আপনার যে কাজটি করতে ভালো লাগে সেটি নিয়েই আপনি অনলাইনে কাজ করতে পারেন। আপনি বর্তমানে কী ধরনের প্রতিষ্ঠানে জব করছেন? অফলাইনে হোক বা অনলাইনে হোক; কোন সেক্টরে জব করছেন? কি ধরনের কাজ আপনি করেন? নিচে কমেন্ট সেকশনে আমাদেরকে জানান যেন আপনার কাছ থেকে আমরা কিছু শিখতে পারি। নতুন কোন আইডিয়া আমরা পেতে পারি।

আমরা অনলাইনে ইনকাম টপিক গুলো নিয়ে আলোচনা করে থাকি। আপনি চাইলে 'টেক বাংলা ইনফো'-এর সাথে যুক্ত থাকতে পারেন। এ বিষয়গুলো সম্পর্কে আপডেট থাকতে পারেন। পরবর্তীতে নতুন কোন বিষয় নিয়ে আবারও কথা হবে।

Comments

  1. রিয়েলি আপনার আর্টিকেলটি অনেক ভালো হয়েছে। ভালো গুছিয়ে লিখতে পারেন আপনি। নিয়মিত ভিজিট করবো।
    অনলাইন ইনকাম 2022 সম্পর্কিত আমার একটি আর্টিকেল অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে ২০২২ আপনাকে ভিজিট করার আমন্ত্রন জানালাম।
    অসংখ্য ধন্যবাদ।

    ReplyDelete
  2. অনলাইন ইনকাম রেপিড ওয়ার্কার থেকে গড়ে বসে আয়ে



    আপনার অ্যাটিকেল পরে অনেক ভালো লাগল

    স্টুডেন্ট অনলাইন ইনকাম রেপিড ওয়ার্কার থেকে গড়ে বসে আয়ে

    আমি নিজে এই সাইটে কাজ করি তাই ভাবলাম কাজটি আপনাদের সাথে শেয়ার করব

    রেপিড ওয়ার্কার কিভাবে আপনি কাজ করবেন কিভাবে একাউন্ট তৈরি করবেন সমস্ত কিছু বর্ণনা দেওয়ার চেষ্টা করবো

    এটি মাইক্রো জব সাইট, প্রতিদিন 2 থেকে 3 ঘন্টা কাজ করে 5 থেকে 10 ডলার আয় করা সম্ভব

    এই সাইটে কাজ করার আগে আপনাকে কিছু নিয়ম জেনে নিতে হবে তাই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন

    আরও পড়ুন

    ReplyDelete

Post a Comment

Popular posts from this blog

১২ হাজার টাকার মধ্যে স্মার্টফোন । কম দামে ভালো ফোন ২০২২

বাংলাদেশের বাজারে 12 হাজার টাকার মধ্যে ভাল স্মার্টফোন খুঁজছেন? 12 হাজার টাকার মধ্যে 2022 সালে কেনার মত অসংখ্য ভাল স্মার্টফোন রয়েছে। 12 হাজার টাকার মধ্যে স্যামসাং, শাওমি, রেডমি, রিয়াল মি, সিম্পনি, ইনফিনিক্স, টেকনো, ওয়ালটন সহ জনপ্রিয় ও নামকরা সকল ব্রান্ডের স্মার্টফোন রয়েছে। প্রত্যেকটি জনপ্রিয় স্মার্টফোন কোম্পানি এক বা একাধিক মোবাইল ফোন দেশের বাজারে অফিশিয়ালি বিক্রি করছে ১০ হাজার থেকে ১২ হাজারের মধ্যে। ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২ সবাই চায় কম দামে ভালো স্মার্টফোন কিনতে। আমাদের সাধ্য অনুযায়ী আমরা সব সময় চাই অল্প বাজেটের মধ্যে ভাল মানের মোবাইল নিতে। কম বাজেটের স্মার্টফোন এ গেমিং করা যায়া এরকম পছন্দ সবার। আবার কেউ কেউ চান ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো স্মার্টফোন যেটি দিয়ে ভালো মোবাইল-গেমিংও হবে আবার ব্যাটারি ব্যাকাপও হবে মনের মত। আপনার বাজেট অনুযায়ী ' ১২ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২ ' সালে কিনতে টেক বাংলা ইনফো এর আজকের পোস্ট টি অনেক কাজে আসবে। ইউটিউবে সফলতা পেতে করণীয় (Success on YouTube) আমাদের দেশে বেশিরভাগ সাধারণ মানুষ কম বাজেটের মধ্যে ভাল মোবাইল ফোন কিনে থা

৮ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২ | কম দামে ভালো ফোন

৮ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন আমরা যারা মধ্যবিত্ত আছি তাদের কে ফোন কেনার আগে অনেক কিছু ভাবতে হয়। যেমনঃ পছন্দের ফোনটির বাজেট যা আছে এই অনুপাতে ফোনের পারফরমেন্স কেমন হবে? ফোনটি টেকসই হবে তো? ফিচার গুলো কেমন হবে? ইত্যাদি এ সকল বিষয়। আমাদের আর্থিক অবস্থার উপর ভিত্তি করে বাজেট অনুযায়ী মোবাইল ফোন কিনে থাকি। ' টেক বাংলা ইনফো '-এর আজকের আয়োজনে থাকছে ' ৮ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২ ' এবং ' কম দামে ভালো ফোন ' নিয়ে কথাবার্তা। তো চলুন কথা না বাড়িয়ে চলে যাই মূল আলোচনায়। ৮ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২ আন্তর্জাতিক বাজারে অর্থনীতির মানদন্ডের সাথে অন্য সকল পণ্যের মত মোবাইল এর দামও ব্যতিক্রম নয়। অন্যান্য জিনিসপত্রের মত মোবাইলের দাম সম সময় এক থাকেনা। ৮ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২ এর আজকের আয়োজনে আমরা এমন কিছু স্মার্টফোন এর দাম জেনে নিবো যেগুলো স্মার্টফোন কিনতে গেলে আমাদের নিজের পাশাপাশি পরিবার, বন্ধু-বান্ধব দের পরামর্শ দিতে কাজে আসবে। শুধু কম দামে ভালো ফোন নয়! এর পাশাপাশি স্মার্টফোন ৮ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন ২০২২ এর কনফিগারেশনও জানা

কম্পিউটারে বাংলা যুক্তবর্ণ লেখার নিয়ম । অভ্র ও বিজয় যুক্তবর্ণ

কেমন আছেন বন্ধুরা? আশাকরি সবাই ভাল ও নিরাপদে আছেন। আজকে আমরা ' টেক বাংলা ইনফো ' এর এই পোস্ট এর মাধ্যমে জানবো ' কম্পিউটারে বাংলা যুক্তবর্ণ লেখার নিয়ম ' এবং ' কম্পিউটারে বাংলা যুক্তবর্ণ লেখার নিঞ্জা টেকনিক '। ও হ্যাঁ! ভালো কথা!! আপনি যদি কম্পিউটারে বাংলা লেখার নিয়ম কিংবা ল্যাপটপে বাংলা লেখার নিয়ম জানতে চান তাহলে এই পোস্ট থেকে জেনে নিন কিভাবে কোন সফটওয়্যার ছাড়াই কম্পিউটারে বাংলা লিখা যায়? সফটওয়্যার ছাড়া কম্পিউটারে বাংলা লেখার নিয়ম । ২টি নিঞ্জা টেকনিক । কম্পিউটারে বাংলা যুক্তবর্ণ লেখার নিয়ম শুধু অফিসিয়াল কাজের ক্ষেত্রে নয়; বর্তমানে বাংলায় টাইপিং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতেও অনেক জনপ্রিয়। কম্পিউটারে বাংলা টাইপ করার সময় আমরা অনেক সময় বিপাকে পড়ে যাই। বিশেষ করে বাংলা যুক্তবর্ণ যখন টাইপ করার দরকার হয় তখন। আজকের এই পোস্ট পড়ার মাধ্যমে আপনি কম্পিউটারে বাংলা যুক্তবর্ণ লেখার নিয়ম জানতে পারবেন। আজকে কম্পিউটারে বাংলা যুক্তবর্ণ লেখার নিয়ম নিয়ে কি কি কাভার করবো তার শিরোনাম গুলো জেনে নিই। কম্পিউটারে বাংলা যুক্তবর্ণ লেখার নিয়ম কম্পিউটারে বাংলা যু