Skip to main content

Posts

Showing posts from April, 2021

কেন আপনার ওয়েব সাইট BDIX সার্ভারে হোস্ট করবেন ও কখন করবেন।

  কেন আপনার ওয়েব সাইট BDIX সার্ভারে হোস্ট করবেন ও কখন করবেন। বিডিআইএক্স বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ। দেশের ট্রাফিক যেন দেশের ভিতরে দিয়ে রাউটিং হয়, সেজন্য এই ইন্টারনেট এক্সচেঞ্জ এর জন্ম। আর এই নেটওয়ার্কের সাথে যারা কানেক্টটেড তারা দ্রুত একে অন্যের সাথে ডাটা আদান-প্রদান করতে পারে। আর এই নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত সার্ভারই হচ্ছে BDIX হোস্টিং। প্রতিদিনই দেশিও লোকাল ভিজিটর কে টার্গেট করে অনেক কনটেন্ট ও ওয়েব সাইট হোস্ট হচ্ছে। যে সকল সাইটের বেশিরভাগ টার্গেট অডিয়ান্স বাংলাদেশের তাদের জন্য BDIX কানেকটেড হোস্টিং আশির্বাদ স্বরুপ। বাংলাদেশী ইউজাররা যখন বিডিআইএক্স নেটওয়ার্কে থাকা একটি সাইট ভিজিট করবে, তখন সে 1-3 ms এ সার্ভারে কানেক্টেড হয়ে যাবে। এতে ওয়েব সাইট ফাস্ট লোড হবে ব্রাউজারে। মনে হবে যেন নিজের পিসিতেই ব্রাউজ করা হচ্ছে। বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হয় ইউএস এ লোকেশনের সার্ভার। সিডিএন ব্যতীত ইউএসএ সার্ভারের রেসপন্স টাইম ২৫০ থেকে ৪৫০ মিলিসেকেন্ড পর্যন্ত হয়ে থাকে। রেসপন্স বেশি হলে সাইট লোডিং টাইম বেশি হবে অপরদিকে রেসপন্স টাইম যতো কম হবে সাইটের লোড দ্রুত হবে। কমান্ড প্র

ফেসবুকে লেখা BOLD কিংবা Italic অথবা Font-size বড় করে পোস্ট করুন।

  ফেসবুকে লেখা BOLD কিংবা Italic অথবা Font-size বড় করে পোস্ট করুন। আপনি যদি ডেক্সটপ কিংবা ল্যাপটপ ব্যবহার করে ফেসবুকে পোস্ট করেন তাহলে আপনার সমস্যা হবে না। আপনি খুব সহজেই লেখা Bold, Italic কিংবা Font size বড় করতে পারবেন। কিন্তু বর্তমানে অধিকাংশ মানুষ মোবাইলেই ফেসবুক ব্যবহার করেন। আজকে আমি দেখাবো আপনারা কিভাবে মোবাইলের মাধ্যমেই লেখা Bold কিংবা Italic অথবা Font size বড় করে পোস্ট করবেন। যেভাবে করবেন: Step 1: প্রথমে আপনাকে আপনার মোবাইলের ব্রাউজারে (Chrome ব্যবহার করতে পারেন) ফেসবুক লগইন করতে হবে। Step 2: তারপর আপনি যে গ্রুপে পোস্ট করতে চান সেখানে গিয়ে What’s on your mind -অপশনে ক্লিক করে লেখা শুরু করবেন, অথবা আগে থেকে লেখা কপি করা থাকলে সেখানে পেস্ট করবেন। Step 3:  এবার যে অংশটুকুতে ইফেক্ট দিতে চান সেটুকু সিলেক্ট করুন নিচের অপশন গুলো ফলো করুন: B-দিয়ে Bold (লেখা বোল্ড করতে পারবেন) I-দিয়ে Italic (লেখা ইটালিক করতে পারবেন) H1-দিয়ে Header 1 (Font Size বড় করতে পারবেন) H2-দিয়ে (HEADER 2) “ -দিয়ে Quote (উক্তি কিংবা কথোপকথনের ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারবেন) 𒊹︎︎︎-দিয়ে Unordered List ব্যবহার ক

আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখুন

  আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখুন FACEBOOK ID HACK কথাটা এখন প্রায়'ই শুনা যায়। আমরা সাধারন কিছু বিষয় ফলো করলেই এই সমস্যা থেকে মুক্ত থাকতে পারবো। Facebook-আইডি যেভাবে নিরাপদ রাখা যায়। জন্মতারিখ: আইডির date of birth-আপনার id হ্যাক হওয়ার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে।অনেকেই date of birth ছাড়া id hack করতে পারে না।সুতরাং id তে দেওয়া date of birth hide রাখুন। Two factor বা login approval on. Two factor authentication আইডি hack হওয়ার কবল থেকে রক্ষা করতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।আপনার আইডি নিরাপদ রাখতে two factor কিংবা login approval চালু রাখুন। যেভাবে চালু করবেন: প্রথমে ফেসবুকে ঢুকে Settings & Privacy তে যান,তারপর Security and Login এ ক্লিক করুন।অতঃপর দেখুন Use two-factor authentication নামে একটা অপশন আছে ঐখানে ক্লিক করুন।এরপর Set Up এ ক্লিক করুন।এবার দেখুন একটি ঘরে আপনার কাছে ফোন নাম্বার চাচ্ছে,ঐ ঘরে আপনার ফোন নাম্বার দিন।নাম্বার দেওয়ার পর আপনার ফোনে 6 সংখ্যার একটি কনফার্মেশন কোড যাবে।এবার কোড দিয়ে কনর্ফাম করুন two factor authentication চালু হয়ে যাবে। T

আজকে আমরা আলোচনা করব Recovery code সম্পর্কে

  আজকে আমরা আলোচনা করব Recovery code সম্পর্কে Recovery কোড কী? ফেসবুকে আমরা two factor authentication ব্যবহার করে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করি। Two factor authentication আমরা দুইভাবে ব্যবহার করতে পারি। মোবাইল নাম্বারের মাধ্যমে অ্যাপস এর মাধ্যমে (অ্যাপস এর মাধ্যমে সবচেয়ে সহজ মনে হয়েছে আমার কাছে) কিন্তু কখনো যদি two factor এক্টিভ করা সিম অথবা two factor এর কোড পেতে বিলম্ব হয়, তখন ফেসবুক আইডিতে লগ ইন করতে মহা মুশকিল হয়ে যায়।এজন্যই রিকভারি কোড সিস্টেম। অর্থাৎ two factor authentication কোডের কাজ রিকভারি কোড দিয়ে সাময়িক ভাবে সম্পন্ন করতে পারবেন। Recovery কোড ব্যবহার : রিকভারি কোড ব্যবহার করে আপনি two factor authentication কোড ছাড়াই আপনার আইডিতে এক্সেস নিতে পারবেন। প্রতিবার আপনি ১০ টি করে রিকভারি কোড পাবেন এবং প্রতিটি কোড একবার করে ব্যবহার করা যাবে। Recovery কোডের সুবিধা: মনে করুন আপনি ইমার্জেন্সি ফেসবুকে লগিন করবেন কিন্তু আপনি two factor authentication সিস্টেম কোনো কারণে ব্যবহার করতে পারতেছেন না।এই মুহুর্তে আপনি two factor কোডের পরিবর্তে recovery কোড ব্যবহার করতে পারবেন।যেই কোড টি ব্যব

ক্রোম ব্রাউজারে private dns দিয়ে এড ব্লক করবেন যেভাবে

  ক্রোম ব্রাউজারে private dns দিয়ে এড ব্লক করবেন যেভাবে- ------------------ ☞ আপনার মোবাইলে গুগল ক্রোম ওপেন করুন > setting > privacy and security > Use Secure DNS > (অফ থাকলে অন করুন) > choose another provider > ☞ এখানে আগে থেকেই বেশ কয়েকটা দেয়া আছে, সেগুলোর মাঝে clean browsing (family) সিলেক্ট করতে পারেন। অথবা চাইলে custom সিলেক্ট করে নিজের ইচ্ছামত কোনো DNS-over-HTTPS ঠিকানা দিতে পারেন। যেমন: adguard (family) ভালো - https://dns-family.adguard.com/dns-query .... কখনও এটা বন্ধ করতে চাইলে, একই যায়গায় গিয়ে শুধু use secure dns অফ করে দিবেন৷ --------- নোটঃ ১। কেউ অপশনটা খুজে না পেলে অথবা কাজ না করলে লেটেস্ট ভার্শনের ক্রোম ব্যবহার করে দেখুন। তবুও না পেলে নিচের স্টেপ ফলো করুন- ☞ প্রথমে এড্রেসে chrome://flags লিখে প্রবেশ করুন > সার্চের যায়গায় লিখুন dns > এরপর যে অপশনগুলো পাবেন সেগুলোতে কিছু চেঞ্জ করতে হবে- ☞ Support for HTTPSSVC records in DNS - এনাবল করুন ☞ Async DNS Resolver - ডিসেবল করুন। এবার ক্রোম রিস্টার্ট দিন। আশা করছি সব ফাংশন পেয়ে যাবেন। ২। পিসির ব্রাউজারে ব্যব